আদি কিয়ারোস্তামির তিনটি শর্টফিল্ম

0
288

ফিচার ফিল্মের কাব্যিক জাদুকর হয়ে ওঠার আগে, আব্বাস কিয়ারোস্তামির সিনেযাত্রা শুরু হয়েছিল শর্টফিল্ম দিয়ে। তার একেবারেই শুরুর তিনটি শর্টফিল্মের শর্ট-রিভিউর পাঠ নেওয়া যাক…

গ্রন্থনা ও অনুবাদ । রুদ্র আরিফ

ব্রেড অ্যান্ড অ্যালি
ব্রেড অ্যান্ড অ্যালি

ব্রেড অ্যান্ড অ্যালি

লিখেছেন । ডিন ডানকান
দ্য ব্রেড অ্যান্ড অ্যালি । মূল শিরোনাম : Nān o Kūcheh। স্ক্রিপ্ট ও ডিরেকশন : আব্বাস কিয়ারোস্তামি 
রানিং টাইম : ১০ মিনিট । রঙ : সালাকালো । ভাষা : ফার্সি । নির্মাণকাল : ১৯৭০

য়জন শিল্পী, আমাদের মধ্যে কয়জন মানুষ ভীষণ ধীরে ধীরে নিজেদের ম্যাচিউর স্টাইল খুঁজে নেয়? কয়জনই বা পারে সেটির সীমারেখাও পেরিয়ে যেতে? হ্যাঁ, আব্বাস কিয়ারোস্তামি পেরেছেন। একেবারে শুরু থেকেই পেরেছেন। নিজের একটি পথ সৃষ্টি করে, সেটিকে লালন করে, পেরেছেন পেরিয়ে যেতে। তার ফল তো সামনেই! এই বিখ্যাত ফিচার ফিল্মগুলোর অনুরাগীমাত্রই জানেন, কোনো মেথডকে এগিয়ে নেওয়া কতটা ক্ষমতা কিংবা কী পরম অসামান্যতার ব্যাপার। ব্রেড অ্যান্ড অ্যালিতে আগেকার মেথডগুলোকে বিবেচনায় রেখে, বুড়ো মানুষটির উদ্ভট ছোট্ট এপিসোডটির দিকে চোখ দেওয়া যাক। লোকটি হেঁটে যায় গলির শেষ মাথা পর্যন্ত; তারপর আমাদের অল্পবয়সী নার্ভাস নায়কটি তাকে অনুসরণ করতে থাকে, এবং লোকটি ভুল পথে হাঁটা ধরলে, পুঁচকেটা তাকে ঠিক পথ ধরিয়ে দেয় না!

কিয়ারোস্তামির আরও অনেক সিনেমার মতো, এখানেও আমরা চরিত্রগুলোর প্রাত্যহিক জীবনের মুখভঙ্গির যে কোনো বিকল্প, কিংবা যে কোনো ধরনের প্রতীককে ধরে নিতে পারি। খাবারের টাকা দিয়ে আপনি কি নিজের পেটকে শান্ত করেছেন? কিংবা উদারতা কি কোনো শত্রুকে পরিণত করে বন্ধুতে? কিংবা নিপীড়িত কি হয়ে ওঠে নিপীড়ক? কিংবা বড় মানুষেরা কি শেষ পর্যন্ত যে কোনো শিশুতোষ উদ্যোগের সঙ্গে আপস করে? আর ইতিহাস কি পুরনাবৃত্ত হওয়ার দণ্ডপ্রাপ্ত?

কিয়ারোস্তামি এইসব অনুসরণধর্মী কিংবা পারিপার্শ্বিক বিষয়-আশয়ের নিষ্পত্তি দেখান না; তাই না? তিনি এগুলোকে নিশ্চিতভাবে জড়িয়ে দেন মিউজিকের পরতে। নিজের এই একেবারেই প্রথম সিনেমায় তার যে সকল সফিস্টিকেটেড ও সার্বজনীন রূচির দেখা আমরা পাই, তা আমাদের তার ম্যাচিউর কাজগুলোর কথা মনে করিয়ে দেয়।

  • ডিন ডানকান। আমেরিকান সিনে-সমালোচক
    সূত্র : ফিল্মস ইন রিভিউ। ফিল্ম জার্নাল; ইউনিভার্সিটি অব উটা, যুক্তরাষ্ট্র

ব্রেকটাইম
ব্রেকটাইম

ব্রেকটাইম

লিখেছেন । আগা খান মিউজিয়াম প্রতিনিধি
দ্য ব্রেড অ্যান্ড অ্যালি । মূল শিরোনাম : Zang-e Tafrīh। স্ক্রিপ্ট ও ডিরেকশন : আব্বাস কিয়ারোস্তামি 
রানিং টাইম : ১৩ মিনিট ৫০ সেকেন্ড । রঙ : সালাকালো । ভাষা : ফার্সি । নির্মাণকাল : ১৯৭২

কিয়ারোস্তামির আরও অনেক সিনেমার মতো, এখানেও ফুটবলের প্রতি আসক্ত এক স্কুুলছাত্রকে স্কুল থেকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়, বল দিয়ে জানালা ভেঙে ফেলার দায়ে। ফেরার পথে সে অন্য শিশুদের ফুটবল খেলতে দেখে সেখানে ছুটে যায়, কিন্তু তারা তাকে তাড়িয়ে দূর করে দেয়। উদ্ভ্রান্তের মতো ঘুরতে ঘুরতে সে হাজির হয় শহরতলির সীমানায়। এই হলো ১৯৭৩ সালে নির্মিত, সংলাপবিহীন, ১৪ মিনিট দৈর্ঘ্যের ব্রেকটাইম শর্টফিল্মটির কাহিনী।

১৯৯৯ সালে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কিয়ারোস্তামি বলেছিলেন, আপনাদের হয়তো বিশ্বাস হবে না; তবু সত্য হলো, ব্রেকটাইম আমার আদর্শ সিনেমাগুলোর দ্বিতীয়টি। এই ফিল্মটিই টেস্ট অব চেরির স্টোরিটেলিংয়ের ফর্ম, স্পর্ধা ও বর্জন এবং অনির্ণীত এন্ডিংয়ের প্রতি টেনে নিয়ে গেছে আমাকে।

  • আগা খান মিউজিয়াম। ইসলামি, ইরানি ও মুসলিম শিল্প-জাদুঘর; টরোন্টো, কানাডা
    সূত্র : মিউজিয়ামের ওয়েব সাইট


    টু সলিউশনস ফর ওয়ান প্রবলেম
    টু সলিউশনস ফর ওয়ান প্রবলেম

টু সলিউশনস ফর ওয়ান প্রবলেম

লিখেছেন । কেনেথ জর্জ গডউন
টু সলিউশনস ফর ওয়ান প্রবলেম । মূল শিরোনাম : Dow Rahehal Baraye yek Massaleh
স্ক্রিপ্ট ও ডিরেকশন : আব্বাস কিয়ারোস্তামি । রানিং টাইম : ৪ মিনিট ২৫ সেকেন্ড 
রঙ : রঙিন । ভাষা : ফার্সি । নির্মাণকাল : ১৯৭৫

দুটি প্রাথমিক শর্টফিল্মের পর এই শর্টফিল্মটি নির্মাণ করেছেন আব্বাস কিয়ারোস্তামি। এই তুখোড় ইরানিয়ান ফিল্মমেকার দৃশ্যতই আগের ফিল্ম দুটিকে খানিকটা আড়াল করে রেখেছেন, এবং কখনোই সেগুলোর বাণিজ্যিক মুক্তি দেননি; কেননা, সেগুলো বানানোর সময়কালে নিজেকে একজন শিল্পী হিসেবে বিবেচনা করেননি তিনি। যদিও সেগুলোর গঠন প্রক্রিয়ার মধ্যে নিঃসন্দেহে শিল্পমানের উপস্থিতি ছিল, তবু সেগুলো মূলত নির্মিত হয়েছিল নীতিবাদী শিক্ষামূলক সিনেমা হিসেবে। অন্যদিকে, টু সলিউশনস ফর ওয়ার প্রবলেম হলো বদলে যাওয়া পরিস্থিতির প্রতি শিশুদের প্রতিক্রিয়ার উপর নির্ভর করে নির্মিত একটি প্রাণবন্ত ও মজাদার অনুশিক্ষা : এখানে এক বালককে তার বন্ধুর বই বন্ধুর কাছে ফিরিয়ে দিতে দেখি আমরা। বই পেয়ে দ্বিতীয় বন্ধুটি টের পায়, তার বই ছেড়া। সে প্রথম বন্ধুটির উপর প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে ওঠে, এবং তার বইও ছিড়ে দেয়। তারপর পরস্পরের মধ্যে এই প্রতিহিংসা বাড়তে বাড়তে মারামারিতে রূপ নেয়, এবং একজনের মাথা ফেটে যায় তো, আরেকজনের চোখ হয়ে যায় কালসিটে। এ পর্যন্ত দেখানোর পর এই চার মিনিট দৈর্ঘ্যের ফিল্মটি রিউইন্ড করানো হয় : এবার দেখা যায়, প্রথম বন্ধুটি দ্বিতীয় বন্ধুর কাছে গিয়ে ছেড়া বইটি দেখাতেই দ্বিতীয় বন্ধুটি প্রথম বন্ধুর বইয়ে আঠা লাগিয়ে ঠিক করে দিচ্ছে। ফলে সবকিছু ভালোয় ভালোয় মিটে যায় এবং তাদের বন্ধুত্ব অটল থাকে। এই দুই বালকের সোজাসাপ্টা পারফরম্যান্স এবং কাহিনী বিন্যাসের সরলতাকে অনেক সিনে-সমালোচক অভিহীত করেছেন, মেসেজের মধ্যে হিউমার জুড়ে দিয়ে একটি অসাধারণ ব্রেসঁধর্মী [রোবের ব্রেসঁ; ফরাসি ফিল্মমেকার] হয়ে ওঠা ফিল্ম হিসেবে।

  • কেনেথ জর্জ গডউন। কানাডিয়ান ফিল্ম এডিটর, প্রডিউসার, ডিরেক্টর
    সূত্র : কেজি ফিল্মস। ফিল্ম জার্নাল, কানাডা। ১৫ মার্চ ২০১৫
Print Friendly, PDF & Email
শেয়ার
সম্পাদক : ফিল্মফ্রি । ঢাকা, বাংলাদেশ।। সিনেমার বই [সম্পাদনা/অনুবাদ] : ফিল্মমেকারের ভাষা [৪ খণ্ড : ইরান, লাতিন, আফ্রিকা, কোরিয়া]; ফ্রাঁসোয়া ত্রুফো : প্রেম ও দেহগ্রস্ত ফিল্মমেকার; তারকোভস্কির ডায়েরি; স্মৃতির তারকোভস্কি; হিচকক-ত্রুফো কথোপকথন; কুরোসাওয়ার আত্মজীবনী; আন্তোনিওনির সিনে-জগত; কিয়ারোস্তামির সিনে-রাস্তা; সিনেঅলা [৩ খণ্ড]; বার্গম্যান/বারিমন; ডেভিড লিঞ্চের নোটবুক; ফেদেরিকো ফেল্লিনি; সাক্ষাৎ ফিল্মমেকার ফেদেরিকো ফেল্লিনি ।। কবিতার বই : ওপেন এয়ার কনসার্টের কবিতা; র‍্যাম্পমডেলের বাথটাবে অন্ধ কচ্ছপ; হাড়ের গ্যারেজ; মেনিকিনের লাল ইতিহাস ।। মিউজিকের বই [অনুবাদ] : আমার জন লেনন [মূল : সিনথিয়া লেনন]

মন্তব্য লিখুন